গ্রেনেড হামলার ঘটনাকে মানবতাবিরোধী অপরাধ :সুরঞ্জিত

আপডেট : December, 15, 2015, 7:06 pm

২০০৪ সালের ২১ আগস্ট বঙ্গবন্ধু এভিনিউতে আওয়ামী লীগ আয়োজিত সমাবেশে গ্রেনেড হামলার ঘটনাকে মানবতাবিরোধী অপরাধ হিসেবে উল্লেখ করেছেন আওয়ামী লীগ নেতা ও সাবেক মন্ত্রী সুরঞ্জিত সেনগুপ্ত। তিনি বলেন, এই ভয়াবহ হামলার ঘটনাকে মানবতাবিরোধী অপরাধ না বললে কোন ঘটনাকে বলবো? ওইদিন বিগত চার দলীয় সরকারের পক্ষ থেকে কেউ অসহায় মানুষদের সাহায্যের জন্য এগিয়ে আসেননি, বরং মামলার আলামত নষ্ট করা হয়েছিলো।
মঙ্গলবার কেন্দ্রীয় কারাগার সংলগ্ন নাজিমউদ্দিন রোডে স্থাপিত ঢাকার দ্রুত বিচার ট্রাইব্যুনাল-১ এ রাষ্ট্রপক্ষের ২০৩ নম্বর সাক্ষী হিসেবে সুরঞ্জিত অসমাপ্ত এ জবানবন্দি দেন। বিচারক শাহেদ নূরউদ্দিন জবানবন্দি গ্রহন করে বৃহস্পতিবার পরবর্তী বিচার কার্যক্রমের জন্য দিন ধার্য রাখেন।
জবানবন্দিতে সুরঞ্জিত বলেন, তারেক রহমানের নেতৃত্বে হাওয়া ভবনে বসে এ হামলার পরিকল্পনা হয়েছিলো। সেখানে হারিছ চৌধুরী, মোফাজ্জল হোসেন কায়কোবাদ, হানিফ পরিবহনের মালিক মো. হানিফসহ অন্যান্যরা উপস্থিত ছিলেন বলে পরবর্তীতে পত্রপত্রিকায় দেখেছি।

এ ছাড়া জোট সরকারের সাবেক উপমন্ত্রী আবদুস সালাম পিন্টুর বাসায় জঙ্গিদের নিয়ে বৈঠক করেছিল। তিনি বলেন, আওয়ামী লীগের শান্তিপূর্ণ জনসমাবেশে সুপরিকল্পিতভাবে নিরস্ত্র জনতার ওপর সমরাস্ত্র দিয়ে জঙ্গি হামলা করা হয়েছিল। এটি ছিল তত্কালীন ক্ষমতাসীন বিএনপি-জামায়াত জোট সরকারের পৃষ্ঠপোষকতায় গণহত্যা। যা বিশ্বের ইতিহাসে বিরল ঘটনা। দেশ ও আওয়ামী লীগকে নেতৃত্বশূন্য করার জন্যই সুপরিকল্পিতভাবে এ হামলা চালানো হয়েছিল।