সোনাগাজীতে প্রবাসীর স্ত্রীর চুল কেটে এবং যুবককে জুতার মালা পরিয়ে নির্যাতনের ঘটনায় পৃথক দু’মামলা সহ ৪ মামলায় চরদরবেশ ইউপি চেয়ারম্যান ও যুবলীগ নেতা ভুট্টু কারাগারে

আপডেট : September, 18, 2016, 1:21 pm

 

জাবেদ হোসাইন মামুন->>>
ফেনীর সোনাগাজীতে পরকিয়া প্রেমের কথিত অভিযোগ এনে এক এক গৃহবধুর চুল কেটে ও এক চা দোকানী যুবককে মাথা ন্যাড়া ও জুতার মালা পরিয়ে নির্যাতনের ঘটনায় পৃথক দু’মামলা ও পূর্বের গ্রেফতারী পরোয়ানার দু’মামলা সহ ৪ মামলায় গ্রেফতার দেখিয়ে চরদরবেশ ইউপি চেয়ারম্যান ও যুবলীগ নেতা নুরুল ইসলাম ভুট্রোকে আদালতে সোপর্দ করলে আদালত তার জামিন নামঞ্জুর করে কারাগারে প্রেরণের আদেশ দেন। রোববার রাত ২টা ১৫ মিনিটে ফেনী শহরের ডাক্তার পাড়াস্থ শ্বশুর বাড়ি থেকে চরদরবেশ ইউপি চেয়ারম্যান ও উপজেলা যুবলীগের সাধারন সম্পাদক নুরুল ইসলাম ভুট্টু কে গ্রেফতার করেছে সোনাগাজী মডেল থানা পুলিশ। সোনাগাজী মডেল থানার ওসি মো.হুমায়ুন কবিরের নেতৃত্বে পুলিশদল এ অভিযান চালায়। পুলিশ ও ক্ষতিগ্রস্তরা জানায়, চরশাহাভিকারী গ্রামের সামছুল হক সর্দার বাড়ির আবুধাবী প্রবাসী মো. ইসমাইলের স্ত্রী গৃহবধু ছকিনা আক্তার লাভলি একই গ্রামের বলি বাড়ির শাহাব উদ্দিনের ছেলে আমিনকে টাকা ধার দেয়। বিষয়টি গ্রামের কিছু বখাটে জানতে পেরে পরকীয়া প্রেম চলছে বলে আমিনের কাছে চাঁদা দাবি করে। আমিন তাদের চাহিদামত চাঁদা দিতে অস্বীকার করলে বখাটেরা তাকে দেখে নেওয়ার হুমকি দেয়।
শুক্রবার লাভলি আমিনের বাড়িতে পাওনা টাকা চাইতে গেলে পূর্ব পরিকল্পনা অনুযায়ী বখাটেরা তাদের দু’জন কে আটক করে মারধর করে। বিষয়টি স্থানীয় চেয়ারম্যান ভুট্টুকে জানালে সে ঘটনাস্থলে এসে বিচারের নামে গৃহবধুর মাথার ছুল কেটে এবং আমিনের মাথা ন্যাড়া করে জুতার মালা পরিয়ে, কান ধরে উঠবস করিয়ে গ্রাম ঘুরানোর আদেশ দেয়।
আদেশ পেয়ে বখাটেরা গৃহবধুর ছুল কেটে ও আমিনের মাথা ন্যাড়া করে জুতার মালা পরিয়ে কান ধরে উঠবস করিয়ে গ্রামের রাস্তা প্রদক্ষিণ করায়। এঘটনায় ছকিনা আক্তার লাভলী ও আমিন বাদি হয়ে নুরুল ইসলাম ভুট্রো, মাসুদ দুলাল, জামাল ও ইমান আলী সহ ৫ জনের নাম উল্লেখ করে এবং অজ্ঞাতনামা ১৫/২০ জনকে আসামি করে সোনাগাজী মডেল থানায় শনিবার রাতে পৃথক দুটি মামলা দায়ের করেন।
সোনাগাজী মডেল থানার ওসি মো. হুমায়ূন কবির জানান, তার বিরুদ্ধে আরো দুটি মামলায় গ্রেফতারী পরোয়ানা রয়েছে।