সোনাগাজীতে বিয়ের প্রলোভনে স্কুল ছাত্রী ধর্ষণ করে ভিডিও, বখাটে গ্রেফতার

আপডেট : October, 29, 2016, 2:03 am

জাবেদ হোসাইন মামুন->>>
সোনাগাজী মোহাম্মদ ছাবের মডেল পাইলট হাই স্কুলের দশম শ্রেণির এক ছাত্রীকে বিয়ের প্রলোভনে ধর্ষন ও ফেসবুকে আপত্তিকর ছবি প্রকাশের অভিযোগে শুক্রবার বিকালে উপজেলার সদর ইউনিয়নের সুজাপুর গ্রাম থেকে সুমন নামের এক বখাটেকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।
সংশ্লিষ্ট সূত্র জানায়, উপজেলার বগাদানা ইউনিয়নের পাইকপাড়া গ্রামের বাসিন্দা ও সোনাগাজী মোহাম্মদ ছাবের মডেল পাইলট হাই স্কুলের দশম শ্রেণির ছাত্রী সদর ইউনিয়নের সুজাপুর গ্রামে নানা বাড়িতে থেকে লেখাপড়া করে আসছে। দীর্ঘদিন থেকে স্কুলে আসা-যাওয়ার পথে ছাত্রীটিকে পূর্ব সুজাপুর গ্রামের সাইদুল হকের ছেলে সহিদুল ইসলাম সুমন (২২) প্রেমের প্রস্তাব দেয়। বিষয়টি জনৈক ছাত্রী তার অভিভাবকদেরকে জানালে তারা স্কুল কর্তৃপক্ষের মাধ্যমে ছেলের পরিবারের সদস্যদেরকে জানিয়ে একাধিকবার সালিশী বৈঠক হয়। একপর্যায়ে মেয়েটি সুমনের প্রেমের প্রস্তাবে সাড়া দেয়। গত ২৫ সেপ্টেম্বর মেয়েটি স্কুলের আসার জন্য নানার বাড়ি থেকে বের হলে মনগাজী বাজার থেকে ছেলেটি পূর্বপরিকল্পিতভাবে তার বোনের বাড়িতে নিয়ে যাবে বলে সিএনজি অটোরিক্সায় রওয়ানা হয়। পৌর এলাকার মহেশ্বর গ্রামের শাহাবুদ্দিনের নতুন বাড়ির নুর নবীর বশতঘরে নিয়ে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে জোরপূর্বক ধর্ষণ করে। এসময় মোবাইল ফোনে মেয়েটির বেশ কিছু আপত্তিকর ছবি তোলা হয়। পরবর্তীতে মেয়েটি বিয়ের জন্য চাপ দিলে সুমন অস্বীকৃতি জানায়। পরে ধর্ষণ ও মোবাইল ফোনে আপত্তিকর ছবি তোলার বিষয়টি তার মাকে জানায়। মেয়েটির মা উম্মে কুলসুম বিষয়গুলো সম্পর্কে সুমনের পরিবারকে জানালে তারাও বিয়েতে আপত্তি জানায়। এ ব্যাপারে বখাটে সহিদুল ইসলাম সুমন (২২) কে আসামি করে বিয়ের প্রলোভনে ধর্ষণ ও আপত্তিকর ছবি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছেড়ে দেওয়ার অভিযোগ এনে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ও তথ্য প্রযুক্তি আইনে সোনাগাজী মডেল থানায় মামলা দায়ের করে। এ ঘটনায় সেকেন্ড অফিসার এস আই এবি এম গোলাম কিবরিয়া বখাটে সুমনকে পূর্ব সুজাপুর গ্রামের তার বাড়ি থেকে গ্রেফতার করে থানায় নিয়ে আসে।
সোনাগাজী মডেল থানার ওসি মো. হুমায়ুন কবির স্কুল ছাত্রী ধর্ষণের ঘটনায় বখাটেকে গ্রেফতারের সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।