ফেনী জেলার প্রতিটি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে কার্যকর স্কাউট চাই জেলা প্রশাসক আমিন উল আহসান

আপডেট : December, 22, 2016, 5:27 pm

জাবেদ হোসাইন মামুন->>>
ফেনী জেলা প্রশাসক আমিন উল আহসান বলেছেন, ফেনী জেলার প্রতিটি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে কার্যকর স্কাউট চাই। যারা আগামীতে সুন্দর সমাজ গঠনে অগ্রণী ভূমিকা পালন করবে। শিক্ষক থেকে শুরু করে যে যেই অবস্থানে থাকিনা কেন, দেশ ও সমাজের প্রতি আমাদের সবার নৈতিক দায়ীত্ব ও কর্তব্য রয়েছে। শিক্ষকদের উদ্দেশে তিনি বলেন, আপনাদের কয়জনের বাসায় কাজের লোক রয়েছে। গুটি কয়েকজন ছাড়া হয়তোবা অনেকের বাড়িতে কাজের লোক নেই। কিন্ত আপনীতো আপনার বাসার বাথরুমটি নিজে পরিস্কার করেন। অনেক শিক্ষক আছেন স্কুলের বাথ রুমটি পরিস্কার করেননা। আবার অনেকে আছেন শিক্ষার্থীদের দিয়ে স্কুলের বাথরুম পরিস্কার করান। এটা ঠিক নয়, স্কুলের বাথরুমটি আপনার বাসার বাথরুম মনে পরিস্কার করে ফেলুন। এতেই আপনার নৈতিকতা ও কর্তব্যবোধ ফুটে উঠবে। আপনী যদি আপনার দায়ীত্ব ও কর্তব্য সম্পর্কে সচেতন হোন তাহলে এ দেশে অন্যায় থাকবেনা। এ দেশ সামনের দিকে এগিয়ে যাবে। এক প্যাকেট চিপস খেয়ে খালি প্যাকেটটি যদি যত্র-তত্র না ফেলে নির্দিষ্ট স্থানে ফেলেন, তাহলে আপনার দেখায় আরও দশজন লোক সচেতন হবে। দেশে সন্ত্রাস ও জঙ্গিবাদ যেন মাথাছড়া দিয়ে উঠতে না পারে, সে ব্যাপারে স্কাউটদের সজাগ থাকতে হবে। সন্ত্রাস ও জঙ্গিবাদের বিরুদ্ধে স্কাউট সদস্যরা সোচ্চার ভূমিকা পালন করতে হবে।
বৃহস্পতিবার দুপুরে সোনাগাজী বালিকা পাইলট উচ্চ বিদ্যালয়ে স্কাউট কুমিল্লা অঞ্চলের বাস্তবায়নে ও স্কাউট সোনাগাজী উপজেলা শাখার আয়োজনে স্কাউট ও কাব স্কাউট সভাপতি এবং প্রতিষ্ঠান প্রধানদের ওরিয়েন্টেশন কোর্সের সমাপনী ও সনদ বিতরণ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে তিনি এসব কথা বলেন। উপজেলা স্কাউটের সভাপতি ও সোনাগাজী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. মিনহাজুর রহমানের সভাপতিত্বে ও উপজেলা স্কাউটের সাধারণ সম্পাদক মাস্টার বেলাল হোসেনের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠিত অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন, উপজেলা চেয়ারম্যান জেড এম কামরুল আনাম, পৌরসভার মেয়র এডভোকেট রফিকুল ইসলাম খোকন, স্কাউট কুমিল্লা অঞ্চলের উপ-পরিচালক ফারুক আহমেদ। অন্যান্যের মাঝে উপস্থিত ছিলেন, উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা আল মমিন, উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষাকর্মকর্তা মো. নুরনবী, সোনাগাজী সদর ইউপি চেয়ারম্যান শামছুল আরেফিন এবং উপজেলা স্কাউটের কমিশনার সুনীল চন্দ্র রায় প্রমূখ। উপজেলার ১৫০টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের ১৫০জন শিক্ষক উক্ত ওরিয়েন্টশনে অংশগ্রহণ করেন।