শিশুটিকে মোমবাতির আগুন দিয়ে শরীরে ছেঁকা দেয়া হতো

আপডেট : October, 24, 2018, 6:02 am

আলোকিত সময় ডেস্ক->>>

 

শিশুটিকে মোমবাতির আগুন দিয়ে শরীরে ছেঁকা দেয়া হতো।ফেনীতে প্রিয়ঙ্কা আক্তার নামে ৫ বছরের শিশুকে বর্বর নির্যাতনের অভিযোগে অভিনেত্রী শাহানা আক্তার শাহেনীকে আটক করেছে পুলিশ। মঙ্গলবার রাতে ফেনী সদর উপজেলার কয়েকটি স্থানে অভিযান চালিয়ে তাকে আটক করা হয়।
পুলিশ ও স্থানীয়রা জানায়, পিতা-মাতাহীন প্রিয়ঙ্কা আক্তারকে পালক মেয়ে হিসেবে নিজের কাছে রাখে এক সময়ে বাংলা সিনেমার অভিনেত্রী শাহানা আক্তার শাহেনী। শাহেনী রাজধানী ঢাকায় অবস্থান করলেও নিয়তিম যাতায়াত করতেন। কিছুদিন পূর্বে প্রিয়ঙ্কাসহ উপজেলার শর্শদি ইউনিয়নের গজারিয়া কান্দি গ্রামের নিজ বাড়ীতে আসেন। স্থানীয়রা আরো জানায়, পালক মেয়ে বললেও প্রিয়ঙ্কাকে দিয়ে ঘরের সব ধরণের কাজ কর্ম করাতেন।

প্রতিবেশী জোহরা আক্তার জানান, মঙ্গলবার বিকালে শাহেনীর বাড়ীতে কান্নার শব্দ শুনে স্বামীকে নিয়ে তিনি সেখানে যান। ক্ষত-বিক্ষত প্রিয়ঙ্কাকে উদ্ধার করে তারা প্রথমে স্থানীয় স্বাস্থ কমপ্লেক্সে ও পরে আধুনিক ফেনী সদর হাসপাতালে ভর্তি করায়।

প্রিয়ঙ্কার বরাত দিয়ে তিনি আরো জানান, সোমবার রাতে শাহেনী লাঠি দিয়ে পেটানোর পর তাঁর শরীর ঝলসে দেয়। পরে তাকে আটক রেখে বেরিয়ে যায়। এভাবে প্রায়ই তার উপর নির্যাতন করতো বলে জানায় শিশুটি।
ফেনী সদর হাসপাতালের আবাসিক মেডিকেল অফিসার (আরএমও) নাজমুল হাসান বলেন, শিশুটির শারীরিক অবস্থা ভালো নয়। শরীরের বিভিন্ন জায়গা ঝলসে যাওয়ায় ওর কিডনি ঝুঁকিতে রয়েছে। উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকা অথবা চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজে নেয়া দরকার।