ফেনীর বালিকা বিদ্যানিকেতন ও সেন্ট্রাল স্কুল বিরুদ্ধে লক্ষ-লক্ষ টাকা আত্মসাৎ’র অভিযোগ- ডিসি বরাবর ক্যাব’র পত্র

আপডেট : January, 29, 2020, 1:07 pm

বিশেষ প্রতিনিধি-
ফেনীর বিভিন্ন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে বেআইনিভাবে অতিরিক্ত কোচিং ফি এসএসসি ফরম ফি এবং মিলাদ ফি আদায় করার বিরুদ্ধে আইনগত ভাবে ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য জেলা প্রশাসক বরাবর অভিযোগ করেছেন ফেনী জেলা কনজ্যুমার অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ (ক্যাব) জেলা কমিটি।

ক্যাবে’র ফেনী জেলা কমিটির সভাপতি এডভোকেট আকরামুজ্জামান ও সাধারণ সম্পাদক এডভোকেট জাহাঙ্গীর আলম নান্টুর স্বাক্ষরিত অভিযোগপত্রে ফেনীর বিভিন্ন স্কুল-মাদ্রাসার বিরুদ্ধে বিভিন্ন খাতে বেআইনিভাবে অতিরিক্ত ফি আদায়ের তালিকায় ফেনীর বালিকা বিদ্যানিকেতন , ফেনী মডেল হাই স্কুল, ফেনী সেন্ট্রাল হাই স্কুল, ফেনী জি এ একাডেমী, বিরিঞ্চি সিনিয়র আলিম মাদ্রাসা ও সোনাপুর উচ্চ বিদ্যালয়ের নাম উল্লেখ করে লিখিত অভিযোগে উল্লেখ করেন।

বর্ণিত শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানসহ জেলার বিভিন্ন উপজেলার শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বিধিবহির্ভূত অতিরিক্ত এসএসসি ফরম ফি , কোচিং ফি এবং মিলাদের নামে লক্ষ লক্ষ টাকা আদায় করা হয়। তিন মাস কোচিং করানোর কথা বলে এক মাস কোচিং করানো হয়নি। মিলাদের নামে অত্যাধিক ফি আদায় করা হয় যদিও বছরের শুরুতে বিভিন্ন উপলক্ষের নামে সেশন ফি নেয়া হয়ে থাকে।
এমন অনিয়মের মাধ্যমে বিধিবহির্ভূতভাবে বিভিন্ন ফি আদায় করে শিক্ষা প্রতিষ্ঠান ব্যাংক একাউন্টে জমা না করে তাহা আত্মসাৎ করা হয়। যাহা সুস্থভাবে তদন্তপূর্বক আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য ফেনী জেলা প্রশাসক বরাবর অভিযোগ দাখিল করেন।

এদিকে নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক উল্লেখিত বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠান অভিভাবক ও শিক্ষার্থী সহ শিক্ষকদের সাথে কথা বলে জানা যায়, উল্লেখিত অভিযোগগুলো সত্য তবে কোচিং এর বিষয়ে তিন মাসের স্থলে দুই আড়াই মাস করানো হয় যাহা শিক্ষকদের পারিশ্রমিক হিসেবে ম্যানেজিং কমিটি কর্তৃক দেয়া হয়ে থাকে এবং মিলাদ ফি’র টাকা বাৎসরিক সেশন ফি’র আওতাভুক্ত কিনা ম্যানেজিং কমিটি ও প্রধান শিক্ষক ভালো জানবেন বলে একাধিক শিক্ষক মতামত ব্যক্ত করেন।

২৯(জানুয়ারি) বুধবার সকালে ফেনী জেলা প্রশাসক কার্যালয়ে অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) সুমি আক্তার কাছে অভিযোগ পত্র তুলে দেন জেলা কমিটির সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট জাহাঙ্গীর আলম নান্টু, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক সিদ্দিক আল-মামুন ও যুব ইউনিট’র সাংগঠনিক সম্পাদক  মোঃ খোকন।