সোনাগাজীতে নকল সোনার বার সহ মলম পার্টির দুই সদস্যকে গণপিটুনি

আপডেট : February, 9, 2020, 6:47 pm

জাবেদ হোসাইন মামুন->>>
ফেনীর সোনাগাজীতে মলমযুক্ত টাকা, নকল সোনার বার ও মলমসহ মলম পার্টির দুই সদস্য মো. মাকসুদ আলম (২৯) ও মো. শাহ আলম (৫০) কে গণপিটুনি দিয়ে পুলিশে সোপর্দ করেছে স্থানীয় জনতা। আটককৃতরা হচ্ছে, লক্ষ্মীপুর জেলার চন্দ্রগঞ্জ থানার পশ্চিম মান্দারী গ্রামের মনর উদ্দিনের বাড়ির মো. নূর আলমের ছেলে মো. মাকসুদ আলম ও গাইবান্ধা জেলার সদর থানার খোলা হাঠি গ্রামের করিম মহুরী বাড়ির জয়নাল আবেদিনের ছেলে মো. শাহ আলম। রোববার দুপুর ১২টার দিকে উপজেলার মঙ্গলকান্দি ইউনিয়নের সোনাগাজী-ফেনী সড়কের ডাকবাংলা জিরোপয়েন্ট থেকে তাদেরকে আটক করা হয়। এসময় মলম পার্টির ৫সদস্য থাকলেও তিনজন পালিয়ে গেছে। পুলিশ ও প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়, চরচান্দিয়া ইউনিয়নের উত্তর চরচান্দিয়া গ্রামের খায়েরুন নেছা নামের এক গৃহবধূকে মলম লাগিয়ে গত ৬ফেব্রুয়ারি বৃহস্পতিবার নকল সোনার বার হাতে ধরিয়ে দিয়ে অজ্ঞান করে অভিনব কায়দায় নগদ ৯ হাজার টাকা ও ৫ ভরি সোনা লুটে নেয় ওই প্রতারকের দল। ওই দিন ওই নারী তার মেয়েকে দেখতে তাকিয়া বাজার এলাকায় মেয়ের বাড়িতে যান। পরে আবার সোনাগাজী যাওয়ার জন্য তাকিয়া বাজার থেকে সিএনজি অটোরিক্সাযোগে করে ডাকবাংলাতে আসেন। ডাকবাংলাতে পূর্ব থেকে দাঁড়ানো সিএনজি অটোরিক্সায় উঠেন তিনি। তাকে একা নিয়ে ওই অটোরিক্সাটি সোনাগাজীর উদ্দেশ্যে রাওয়ানা হয়। কিছুদূর গিয়ে যাত্রীবেশী আরো তিন প্রতারককে ওই গাড়িতে তুলেন চালক বেশী প্রতারক। আরো কিছুদুর যাওয়ার পর তার কানে ময়লা লেগে আছে বলে তার নাকে মুখে মলম যুক্ত টাকা লাগিয়ে তাকে অজ্ঞান করে ফেলে। তখন তার সাথে থাকা পাঁচ ভরি সোনা ও ব্যানিটি ব্যাগে থাকা ৯ হাজার টাকা নিয়ে যায় ওই প্রতারকের দল। তার জ্ঞান ফেরার পর দ্বিগ্বিদিক ঘুরাঘুরির পর স্থানীয়রা তাকে উদ্ধার করে স্বামীর বাড়ি পৌঁছে দেন। ৯ফেব্রুয়ারি রোববার ওই নারী তার কন্যা চাঁদনীকে নিয়ে চিকিৎসার উদ্দেশ্যে ফেনী যাচ্ছিলেন। ডাকবাংলাতে মলম পার্টির সদস্যদের ব্যববহৃত সিএনজি অটোরিক্সা নোয়াখালী- থ-১১-৩৯৪৭ সহ মলম পার্টির ওই পাঁচজন দাঁড়িয়ে সদস্যকে দাঁড়িয়ে থাকতে দেখেন খায়রুন নেসা। এসময় তিনি ও তার কন্যা চিৎকার শুরু করলে স্থানীয় জনতা দুই জনকে আটক করে গণপিটুনি শুরু করে। এসময় তাদের কাছ থেকে একটি নকল সোনার বার ও মলমযুক্ত কিছু টাকা উদ্ধার করা হয়। খবর পেয়ে মঙ্গলকান্দি ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মোশারফ হোসেন বাদল আটকৃতদেরকে পুলিশে সোপর্দ করেন। সোনাগাজী মডেল থানার ওসি মঈন উদ্দিন ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।