ফেনীর ছাগলনাইয়ার অপহৃত ব্যবসায়ী কোম্পানীগঞ্জে উদ্ধার, গ্রেফতার-২

আপডেট : February, 27, 2020, 5:57 pm

আলোকিত সময় ডেস্ক>>>

 

 

মুক্তিপণের জন্য অপহৃত ছাগলনাইয়ার ব্যবসায়ী কামরুল হোসেনকে (৩৮) শ্বাসরুদ্ধকর অভিযান চালিয়ে কোম্পানীগঞ্জ থেকে উদ্ধার করেছে পুলিশ। এসময় দুই অপহরণকারীকে গ্রেফতার ও মুক্তিপণের নগদ ২৫ হাজার টাকা উদ্ধার করা হয়েছে। ঘটনায় গ্রেফতারকৃতদের বুধবার আদালতের মাধ্যমে জেল-হাজতে প্রেরণ করেছে।
অপহৃত ব্যবসায়ী কামরুল ছাগলনাইয়া উপজেলার লাঙ্গলমোড়া গ্রামের মৃত ছিদ্দিক আহমেদেও ছেলে এবং গ্রেফতারকৃত শিমুল (২৮) নোয়াখালীর বসুরহাট পৌরসভা ৮নং ওয়ার্ডের এনাম উল্যাহর ছেলে ও মাইনউদ্দিন রনি প্রকাশ মানিক (২২) চরকাঁকড়া ইউনিয়নের ৪নং ওয়ার্ডের আবদুস ছাত্তারের ছেলে।
কোম্পানীগঞ্জ থানার ওসি মো. আরিফুর রহমান জানান, গত ২১ ফেব্রুয়ারী ব্যবসায়ী কামরুল ড্রীমলাইন বাসে বসুরহাট পৌঁছলে শিমুলের নেতৃত্বে অপহরণকারীরা তাকে বাসস্ট্যান্ড থেকে চোখবেঁধে অজ্ঞাতস্থানে নিয়ে যায়। বিষয়টি অপহৃতের স্বজনরা জরুরী সেবা ৯৯৯ কে জানায়। সেখান থেকে কোম্পানীগঞ্জ থানাকে অবহিত করার পর তিনি অপহৃত ব্যবসায়ীর নাম্বার ট্র্যাকিং করে একেকবার একেক স্থানের ম্যাসেজ পান।
ওসি আরিফ বলেন, সংবাদ পাওয়ার পর থেকে তিনিসহ এসআই জাকির, এসআই মাহফুজ টিম গঠন করে নোয়াখালীর বিভিন্নস্থানে অভিযান চালান। পরে চতুর অপহরণকারীরা পুলিশি অভিযানের টের পেয়ে ব্যবসায়ীকে বিচ্ছিন্ন দ্বীপ হাতিয়ার দুর্গম চরে নিয়ে আটক করে নির্যাতন করে মোবাইল ব্যাংকিং বিকাশ ও রকেটের মাধ্যমে ৭৮ হাজার টাকা আদায় করেন।
এদিকে প্রযুক্তির সহায়তায় অপহৃতের অবস্থান নোয়াখালীর হাতিয়া নিশ্চিত হয়ে ওই থানার সহযোগিতায় অভিযান চালালে অপহরণকারীরা এক পর্যায়ে মঙ্গলবার তাকে বসুরহাট এলাকায় নিয়ে আসে। এখানে পুলিশ কৌশলে মুক্তিপণের আড়াইলাখ টাকা দেয়ার কথা বলে ইসলামী ব্যাংক বসুরহাট শাখার আশেপাশে নিয়ে আসে। অবশেষে নগদ ২৫ হাজার টাকা মুক্তিপণ গ্রহণকালে হাতেনাতে দুই অপহরণকারীকে আটক ও অপহৃত ব্যবসায়ী কামরুলকে উদ্ধার করা হয়। এ ব্যাপারে অপহৃত কামরুল বাদী হয়ে তিন আসামীর নাম উল্লেখ করে অজ্ঞাত আরো ৩/৪ জনকে আসামী করে কোম্পানীগঞ্জ থানায় মামলা দায়ের করেন।