সোনাগাজীর চরখোয়াজে মসজিদের কমিটি গঠন নিয়ে জুমার নামাজে দুই গ্রুপে হাতাহাতি

আপডেট : March, 13, 2020, 6:48 pm

জাবেদ হোসাইন মামুন->>>
সোনাগাজীতে মসজিদ ও সমাজ পরিচালনা কমিটি গঠন নিয়ে দুই গ্রুপে হাতাহাতির ঘটনায় মো. মামুন (৩৫) নামে এক যুবলীগ কর্মী সহ কমপক্ষে ৪জন আহত হয়েছে। শুক্রবার জুমার নামাজের খোৎবার পূর্ব মুহূর্তে সোনাগাজী সদর ইউনিয়নের দক্ষিণ চরখোয়াজ জামে মসজিদে এ ঘটনা ঘটে। কমিটি গঠন নিয়ে দুই গ্রুপে উত্তেজনা বিরাজ করছে। স্থানীয় মুসল্লি, মসজিদের খতিব ও এলাকাবাসী জানায়, গত ৭ মাস পূর্বে স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান সামছুল আরেফিন উপস্থিত থেকে ভোটাভোটির মাধ্যমে আবদুল ছোবহানকে সভাপতি ও আবদুল হান্নান মিন্টুকে সাধারণ সম্পাদক করে ১৭ সদস্য বিশিষ্ট তিন বছর মেয়াদি মসজিদ পরিচালনা কমিটি গঠন করে দেন। একই দিন ভোটাভোটির মাধ্যমে মাস্টার আবদুল কাদেরকে সভাপতি ও মাস্টার কামাল উদ্দিনকে সাধারন সম্পাদক করে ১১সদস্য বিশিষ্ট তিন বছর মেয়াদি দক্ষিণ চরখোয়াজ সমাজ পরিচালনা কমিটি গঠন করে দেন তিনি। কিন্তু পূর্ববর্তী সমাজ পরিচালনা কমিটির সভাপতি আমির হোসেন ও সাধারণ সম্পাদক একেএম সলিম উল্যাহ নবগঠিত কমিটিরর কাছে দায়ীত্ব হস্তান্তর না করে কাল ক্ষ্যাপন করতে থাকেন। গত জুমার নামাজে একেএম সলিম উল্যাহকে সভাপতি ও রফিকুল ইসলামকে সাধারণ সম্পাদক করে ১৭ সদস্য বিশিষ্ট মসজিদ পরিচালনা কমিটি ঘোষণা করেন একটি গ্রুপ । এনিয়ে উত্তেজনা দেখা দিলে পূণরায় ১৩ মার্চ শুক্রবার নতুন কমিটি গঠনের ঘোষণা দেন ইউপি চেয়ারম্যান। খোৎবার পূর্ব মুহূর্তে স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান সামছুল আরেফিন আলোচনার ভিত্তিতে আগামী ২০ মার্চ শুক্রবার নতুন করে সমাজ ও মসজিদ পরিচালনা কমিটি গঠনের ঘোষণা দেন। এসময় স্থানীয় সমাজপতি সৌদি প্রবাসী হাফেজ কামাল উদ্দিন চেয়ারম্যানের কাছে জানতে চান, আপনী উপস্থিত থেকে সাত মাস পূর্বে তিন বছর মেয়াদি দুইটি কমিটি গঠন করে দিয়েছেন। আগামী ২০ মার্চ শুক্রবার আবার কিসের কমিটি গঠন করবেন? কোন ক্ষমতার বলে আপনী মনগড়া কমিটি গঠন করবেন? আপনী ব্যক্তিগত আক্রশের কারণে যাকে-তাকে বাদ দিয়ে কমিটি গঠন করবেন এটা হতে পারেনা। এসময় মসজিদ পরিচালনা কমিটির সভাপতি আবদুস ছোবহান উত্তেজিত হয়ে চেয়ারম্যান সামছুল আরেফিনের উপর চড়াও হন। এসময় দুই গ্রুপের মধ্যে তুমুল হাতাহাতি শুরু হয়। বেশ কিছুক্ষণ হাতাহাতির এক পর্যায়ে খতিব খোৎবা দিয়ে তড়িঘড়ি করে জুমার নামাজ শেষ করেন এবং নামাজ শেষে হট্রগোলকারীদের জন্য হেদায়েত চেয়ে মোনাজাত করেন। এ ব্যাপারে সোনাগাজী সদর ইউপি চেয়ারম্যান সামছুল আরেফিন জানান, একটি গ্রুপ মসজিদ নিয়ে রাজনীতি করছে। মুক্তিযোদ্ধা একেএম সলিম উল্যাহকে সভাপতি ও মুক্তিযোদ্ধার ছেলে রফিকুল ইসলামকে সাধারণ সম্পাদক করে কমিটি ঘোষণা করায় একটি গ্রুপ বিশৃঙ্খলা সৃষ্টির পাঁয়তারা করছে। গত সাত মাস পূর্বে আমি কোন কমিটি গঠন করিনি। এ ধরণের কোন প্রমাণ তারা দেখাতে পারবেননা।
এদিকে সৌদি প্রবাসী হাফেজ কামাল উদ্দিন ও আবদুস ছোবহান জানান, আমরা চাই ভোটাভোটির মাধ্যমে নির্বাচিত কমিটি বহাল থাকুক। মনগড়া পকেট কমিটি আমরা মানিনা এবং এলাকাবাসীও মেনে নেবেননা।