পরশুরামে ৪০ হাজার মাক্স ও হ্যান্ড স্যানিটাইজার সহ উপকরণ দিচ্ছেন পৌর-পিতা সাজেল চৌধুরী

আপডেট : March, 21, 2020, 7:51 pm

পিয়াস চৌধুরী-

সম্প্রীতি মহামারী করোনা ভাইরাস সম্পর্কে সচেতনতা মূলক বিভিন্ন কার্যক্রম গ্রহণ করেছেন ফেনীর পরশুরাম পৌরপিতা ও পরশুরাম উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক নিজাম উদ্দিন আহমেদ চৌধুরী সাজেল।

জানা যায়, পরশুরাম পৌরসভার আওতাধীন ৯টি ওয়ার্ডের জনসাধারণকে করোনা ভাইরাস সংক্রমণের ঝুঁকি কমাতে নিজ উদ্যোগে ৪০হাজার পিস মাক্স , ৫ হাজার হ্যান্ড স্যানিটাইজার ও ৫ হাজার পিস লাইফবয় সাবান দেয়ার ঘোষণা দিয়েছেন মেয়র সাজেল।
ইতোমধ্যে পৌর এলাকার খানা গুলোতে করনা ভাইরাস সংক্রমণে উপকরণগুলো বিতরনের জন্য ছাত্রলীগের বিভিন্ন ইউনিট নিরলস কাজ করছেন বলে জানিয়েছেন পরশুরাম উপজেলা ছাত্রলীগ আহবায়ক জমির উদ্দিন ভাবন।

এছাড়াও পৌর এলাকায় গনসচেতনতা কল্পে পৌর কাউন্সিলর সমন্বয়ে বিভিন্ন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান , ব্যবসায়ী কমিটি-সহ সকল পেশাজীবী শ্রেণীর মানুষদের সাথে দফায় দফায় সচেতনতামূলক বৈঠক করে মাইকিং সহ বিভিন্ন কার্যক্রম পরিচালনা করে আসছেন।
একই সাথে জনসাধারণের ভোগান্তি এড়াতে অসাধু ব্যবসায়ীরা যাতে করে নিত্যপ্রয়োজনীয় দ্রব্যমূল্যের দাম বৃদ্ধি করতে না পারে, পাশাপাশি ভোক্তা যেন প্রয়োজনের বাহিরে (দুই কেজির) বেশি পণ্য ক্রয় করতে না পারে সেই লক্ষ্যে প্রতিদিন মনিটরিং করছেন পৌর কর্তৃপক্ষ।
উপজেলা প্রশাসন ও পুলিশ প্রশাসনের সমন্বয়ে নিবিড় পরিচর্যার মাধ্যমে বিদেশ ফেরত ভাইরাস আক্রান্ত ব্যক্তিদের তালিকা অনুযায়ী সনাক্তকরে ১৪দিন হোম কোয়ারান্টিনের নিয়ম-কানুন মেনে চলতে জনপ্রতিনিধিদের সহায়তা করার নির্দেশ প্রদান করেন।

এই বিষয়ে পৌর মেয়র সাজেল চৌধুরী আলোকিত সময়’কে বলেন সৃষ্টিকর্তার অশেষ কৃপায় সচেতনতার মাধ্যমে হয়তো ভাইরাস থেকে বাঁচা স্বম্ভব যদি স্রষ্টা চান। এজন্য আমাদের সচেতন হতে হবে। গনজমায়াত থেকে বিরত থেকে সরকার ঘোষিত পালনীয় ও বর্জনীয় কানুন গুলো মেনে চলার মাধ্যমে ভাইরাস সংক্রমণ এড়ানোর সম্ভব।

তিনি আক্রান্ত ব্যক্তিদের উদ্দেশ্যে বলেন, সমাজ ও রাষ্ট্রের স্বার্থে আক্রান্ত ব্যক্তিরা কষ্ট করে হলেও নিজ নিজ গৃহে নিয়ম মেনে ১৪ দিন অবস্থান করবেন, নিজে বাঁচুন পরিবারসহ সমাজকে বাঁচাতে সহায়তা করুন।