ফেনীর দাগনভূঞায় ত্রাণ আনতে গিয়ে হামলা, লাঞ্ছনার শিকার গৃহবধু

আপডেট : April, 8, 2020, 12:36 am

আলোকিত সময়-

ফেনীর দাগনভূঞায় সরকার কর্তৃক বরাদ্দকৃত ত্রাণ আনতে গিয়ে হামলা, লাঞ্ছনার শিকার হয়েছেন অসহায় এক গৃহবধু।

ঘটনাটি ঘটেছে উপজেলার ৫নং ইউনিয়নের দেবরামপুর বাদামতলী আশ্রয়ন প্রকল্পে।

নির্যাতিতা ওই গৃহবধু আপমান, হামলা ও লাঞ্ছলনার শিকার হয়ে বখাটে আবুল বাশার (৩৩) ও রানা (২২) নামের ২ জনকে অভিযুক্ত করে থানায় লিখিত অভিযোগ করেছেন।

বাদামতলী আশ্রয়ন প্রকল্পের বাসিন্দা দিদারুল আলমের স্ত্রী শাহিনুর বেগম তাদের বিয়ের উপযুক্ত ২ মেয়েকে নিয়ে উপজেলার বসুরহাট সড়কে বাসা বাড়ীতে থাকেন। তার স্বামী খেটে খাওয়া একজন দিনমজুর।

দেশে করোনা ভাইরাসের সংক্রমণের কারণে বেকার হয়ে পড়েছেন স্বামী। অনাহারে কাটছে তাদের দিন।

এমন সময় গত ২ এপ্রিল উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. রবিউল হাসান বাদামতলী আশ্রয়ন প্রকল্পে সরকার কর্তৃক বরাদ্দকৃত ত্রাণ বিতরণ করবেন শুনে অনাহারে থাকা স্বামী, ১ ছেলে ও ২ মেয়ের মুখে খাবার তুলে দিতে পারবে এভেবে তার ছেলেকে নিয়ে ত্রাণ আনতে যান।

ত্রাণ আনতে গেলে লাইনে দাঁড়িয়ে থাকা অসহায় গৃহবধুকে দেখে হাসী, ঠাট্টা ও অশ্লীল ও মানহানীকর মন্তব্য করতে থাকে বখাটে আবুল বাশার ও রানা। উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা চলে গেলে বখাটে আবুল কাদের ও রানা উচ্চস্বরে উপহাস করতে থাকে। গৃহবধু অপমান সইতে না পেরে চিৎকার করে প্রতিবাদ করলে বাখাটেরা এলোপাথাড়ি কিল-ঘুষি মারতে শুরু করে। এক পর্যায়ে টেনে হিঁচড়ে কাপড় খুলে লাঞ্ছিত করে ওই গৃহবহধুকে। নির্যাতিতার চিৎকারে পাশে থাকা লোকজন এসে তাকে উদ্ধার করে।

পাশে দাঁড়িয়ে থাকা ছেলে মায়ের অপমান সইতে না পেরে প্রতিবাদ করলে ছেলেকে মারতে ধাওয়া করে এবং ছেলেটি নিজের প্রাণ রক্ষা করার জন্য দৌঁড়ে পালিয়ে যায়।

বখাটের ক্ষিপ্ত হয়ে নির্যাতিতার স্বামীর মোটরসাইকেল ভাঙচুর করে।

অভিযুক্ত ২ বখাটের বক্তব্য জানতে মুঠোফোনে যোগাযোগ করতে চাইলে বন্ধ পাওয়া যায় তাদের মুঠোফোন।

স্থানীয় ৯নং ওয়ার্ড ইউপি সদস্য আহমদ উল্যাহ্ ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেন।