সরকারি নির্দেশনা মেনে সবাইকে সচেতন হওয়ার আহবান জানালেন আ.লীগ নেতা আলহাজ্ব এসডিএম দিদার

আপডেট : May, 8, 2020, 2:59 pm

জাবেদ হোসাইন মামুন->>> মহামারি করোনা ভাইরাসের প্রাদুভাবে বিশ্ব মানবতা যখন থমকে গেছে, বিশ্বের সকল নেতা, চিকিৎসক ও বিজ্ঞানীরা যখন দিশেহারা তখন একমাত্র মহান আল্লাহর রহমত আর ভরসা ছাড়া মানবের সামনে আর কোন পথ নেই। বিশ্বের উন্নত দেশগুলো যখন সুস্থ্যভাবে বেঁচে থাকার উপায় খুঁজে পাচ্ছেনা, তখন বাংলাদেশ নামক দেশটি ও তার জনগণ সে তুলনায় অনেকটা শিশু ধরা যায়। এরপরও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার দূরদর্শী সিদ্ধান্ত ও দিকনির্দেশনায় মহানন আল্লাহর রহমতে বাংলাদেশের মানুষগুলো এখনো ভালো আছেন।
মীপরপুর থানা আ.লীগের সহ-সভাপতি সোনাগাজী উপজেলার মঙ্গলকান্দি ইউনিয়নের লক্ষ্মীপুর গ্রামের বাসিন্দা আলহাজ্ব এসডিএম দিদার গণমাধ্যমে প্রেরিত এত ভিডিও বার্তার মাধ্যমে এমনটাই দাবি করেন। তিনি করোনা ভাইরাসের মহামারি থেকে বেঁচে থাকার একমাত্র উপায় হিসেবে দেখছেন মানুষের সচেতনতাকে। মানুষ সচেতন হলে নিজে, পরিবার, সমাজ ও রাষ্ট্রকে বাঁচানো যাবে বলে তিনি দাবি করেন। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ধর্মীভীরু একজন নারী হিসেবে দেশ পরিচালনা করছেন। ধর্মীয় অনুভুতির প্রতি শ্রদ্ধাশীল হয়ে দেশের সকল মসজিদে উম্মুক্ত করে দিয়ে ধর্মপ্রাণ মুসলমানদের ইবাদত বন্দেগীর সুযোগ করে দিয়েছেন। তবে সবাই সচেত হয়ে সামাজিক দূরত্ব মেনে নামাজ ও কোরআন তেলাওয়াত করলে করোনা ভাইরাস থেকে প্রতিকার পাওয়ার আশাবাদ ব্যক্ত করেছেন। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সব সময় দেশ ও দেশের মানুষদের কল্যাণের কথা চিন্তা করেন। সে হিসেবে যুগোপযোগী সিদ্ধান্ত গ্রহণ করেন তিনি। রাষ্ট্রের প্রত্যেক নাগরিকের উচিৎ রাষ্ট্রের প্রচলিত আইনের প্রতিশ্রদ্ধাশীল হওয়া।
তিনি আরো দাবি করেন, ফেনী-২ আসনের সাংসদ নিজাম উদ্দিন হাজারী দেশের জন্য একটি রোল মডেলে পরিণত হয়েছেন। প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনা মেনে তিনি সুদক্ষ নেতৃত্বের মাধ্যমে ফেনী জেলার মানুষদের জন্য দফায় দফায় যেভাবে দানের হাত প্রসারিত রেখেছেন সেটা একটি অণুকরণীয় দৃষ্টান্ত হয়ে থাকবে। তিনি বলেন সমাজের নিন্মবিত্ত থেকে উচ্চবিত্ত পর্যন্ত সবাই আজ দেশে হারা। মানুষ হিসবে সবাই সবার প্রতি সহমর্মী হয়ে পরস্পরের সহযোগিতায় এগিয়ে আসার আহবান জানান। সবাই নিজ নিজ অবস্থান থেকে ইবাদত বন্দেগীর মাধ্যমে মহান আল্লাহর কাছে ক্ষমা চেয়ে সবাইকে পরিত্রাণ চাওয়ার আহবান জানান তিনি। তিনি আরো বলেন, আত্মীয় স্বজন, গরীব ও কর্মহীনদের মাঝে অনেকা গোপনে সাধ্যমত সহযোগিতা করে যাচ্ছেন, সবাইকে এই মহতি কাজে এগিয়ে আসার আহবান জানিয়ে তিনি বলেন, সামনে আরো কঠিন সময় অপেক্ষা করছে। কঠিন সময়ে বাংলাদেশের মানুষদের মহান আল্লাহ যেন হেফাজত করেন, সে প্রত্যাশা করেন।