দাগনভূঞা পৌর মেয়র ফারুক খানের ব্যাক্তিগত উদ্যেগে ঈদ সামগ্রী বিতরণ

আপডেট : May, 19, 2020, 4:55 pm

জসিম উদ্দিন ফরায়েজী

 

বিশ্বব্যাপী চলমান ক্যাভিড ১৯ তথা করোনাভাইরাস আতংকে গৃহবন্দী হয়ে কর্মহীন লোকজন যাতে অভুক্ত না থাকে সে লক্ষে ফেনীর দাগনভূঞা পৌরসভার মেয়র ও পৌর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওমর ফারুক খান তাঁর ব্যক্তিগত উদ্যেগে তিন ধাপে সাত হাজার সাতশ অসহায় লোকজনের মাঝে খাদ্য-ইফতার ও ঈদ সামগ্রী বিতরণ করেছেন। আজ ১৯ মে মঙ্গলবার সকালে দাগনভূঞা বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ে পৌরসভার বেসরকারি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান সমূহে কর্মরত শিক্ষক কর্মচারীসহ বিভিন্ন ওয়ার্ডের তিন হাজার পাঁচশ জনকে ঈদ উপহার প্রদান করা হয়। এতে প্রধান অতিথি ছিলেন জেলা যুবলীগের সভাপতি দাগনভূঞা উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান দিদারুল কবীর রতন।
পৌরসভার মেয়র ওমর ফারুক খানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত ঈদ সামগ্রী বিতরণ অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন দাগনভূঞা উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি রামনগর ইউপি চেয়ারম্যান মাস্টার কামাল উদ্দিন। এসময় শিক্ষক সমিতির নেতৃবৃন্দ, সাংবাদিক ও উপকারভোগীরাসহ স্থানীয় গণ্যমান্য লোকজন উপস্থিত ছিলেন।
প্রধান অতিথির বক্তব্যে দিদারুল কবীর রতন বলেন- চলমান করোনাভাইরাস মহামারী থেকে রক্ষায় সকলকে সচেতন থাকতে হবে। এ মহামারী আক্রান্ত হওয়ার ক্ষেত্রে ধনী-গরীবের কোনো পার্থক্য নেই। তাই সকলকে সরকারের নির্দেশনা মেনে চলতে হবে এবং জরুরী প্রয়োজন ছাড়া ঘর থেকে বের না হওয়ার আহবান জানান। তিনি বলেন- প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ঘোষনা অনুযায়ী দেশে কেউ অভুক্ত থাকবে না প্রয়োজনে ঘরে ঘরে খাবার পৌছে দেয়া হবে, দুশ্চিন্তার কোনো কারণ নেই আমরা সচেতন হলে সংকট দ্রুত দূর হয়ে যাবে।


দাগনভূঞা পৌরসভার মেয়র ওমর ফারুক খান জানান- প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ঘোষনা ও জেলা আওয়ামী লীগের কান্ডারী নিজাম হাজারী এমপি নির্দেশনা অনুযায়ী এবং দাগনভূঞার উন্নয়নের অভিবাবক দিদারুল কবীর রতনের পরামর্শ মতে দাগনভূঞা পৌরসভার কর্মহীন অসহায় মানুষের ঘরে ঘরে সরকারি ও বেসরকারি উদ্যেগে সহায়তা সামগ্রী দেয়া হচ্ছে। এছাড়া আমার ব্যক্তিগত তহবিল হতে তিন ধাপে সাত হাজার সাতশ অসহায় লোকজনের মাঝে প্রথম দফায় খাদ্য, দ্বিতীয় দফায় ইফতার ও তৃতীয় দফায় ঈদ সামগ্রী বিতরণ করা হয়েছে। মহামারী চলাকালে পৌরসভার কোনো নাগরিক যেন অভূক্ত না থাকে সে লক্ষে সহায়তা কর্মকান্ড অব্যাহত থাকবে।