ফেনীতে ৭ম শ্রেণীর ছাত্রী ধর্ষন চেষ্টার ৭ দিনেও গ্রেফতার হয়নি আসামি

আপডেট : June, 16, 2020, 5:24 am

বিশেষ প্রতিনিধি-

ফেনী শহরতলীর পশ্চিম দেবীপুর গ্রামে স্কুল পড়ুয়া সপ্তম শ্রেণীর ছাত্রী ধর্ষণের অভিযোগে থানায় মামলা ১ সপ্তাহেও গ্রেফতার হয়নি বখাটে জহিরুল।

জানা যায়, ফেনীর শর্শদী ইউনিয়নের পশ্চিম দেবীপুর গ্রামে ৭ম শ্রেনী পড়ুয়া লামিয়া আক্তার(১৩) নামে এক ছাত্রীকে জোর পূর্বক ধর্ষনের চেষ্টা চালায় একই এলাকার সওদাগর বাড়ির নুর ইসলামের ছেলে জহিরুল ও তার সহযোগীরা।

গত (৭ জুন) রাত আনুমানিক ৭ টার দিকে টেলিভিশন দেখার জন্য লামিয়া তার খালার ঘরে যাওয়ার সময় জহিরুল ইসলাম (৩৫) সহ আরো দুই জন ধর্ষনের চেষ্ঠা চালিয়েছেন। ঘটনার বিবরনে জানা যায় ওঁৎ পেতে থাকা জহিরুল ইসলাম (৩৫) সহ নাম জানা আরো কয়েকজন লামিয়াকে জোর পূর্বক ধরে যৌন চরিতার্থ করার উদ্দেশ্য ধস্তাধস্তি শুরু করে একপর্যায়ে মেয়ের আত্মচিৎকার শুনে তার আশপাশের লোকজন বেরিয়ে গেলে আসামীদ্বয় পালিয়ে যায়।

লামিয়া মা ফারজানা আক্তার ববি সাংবাদিকদের জানান, লম্পট জহিরুল ইসলাম প্রায় সময় আমাকে ও আমার মেয়েকে নানান কুপ্রস্তাব দিয়ে থাকেন। তাই সাড়া না পেয়ে ঐদিন রাতে একা পেয়ে আমার মেয়েকে জোর পূর্বক ধর্ষনের চেষ্টা চালিয়েছিল। ঘটনার দিন রাতেই ফেনী থানায় এসে অভিযোগ দায়ের করেছেন।

অভিযোগ দায়েরের পরপরই এলাকার এক প্রভাবশালী মহল নানান সময় হুমকি ধমকি দিয়ে যাচ্ছেন, এবং অভিযোগ তুলে নেওয়ার জন্য চাপ সৃষ্টি করে আসতেছেন।

ফেনী মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ আলমগীর হোসেন জানান, ঘটনার দিন রাতেই মেয়ের মা বাদী হয়ে থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন। আমরা অভিযোগ নিয়েছি। আসামি ধরার জন্য আমরা চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছি।