চরচান্দিয়ায় খালের উপর দেয়া দশটি অবৈধ বাঁধ অপসারণ করলেন ইউপি চেয়ারম্যান মিলন

আপডেট : July, 14, 2020, 9:51 pm

জাবেদ হোসাইন মামুন->>>
সোনাগাজীতে খালের উপর অবৈধভাবে দেয়া প্রভাবশালীদের দশটি বাঁধ কেটে পানি চলাচল নির্বিঘ্ন করে দিলেন চরচান্দিয়া ইউপি চেয়ারম্যান মোশারফ হোসেন মিলন।

মঙ্গলবার সকাল থেকে উপজেলা প্রশাসনের নির্দেশনায় উপজেলার চরচান্দিয়া ইউনিয়নের ৭নং স্লুইস গেইট এলাকায় খালের উপর দেয়া অবৈধ বাঁধগুলো অপসারণ করেন তিনি।
এলাকাবাসী ও স্থানীয় চেয়ারম্যান জানান, ওই এলাকার মো. হারুন, আবুল হোসেন, মো. সেলিম, মো. ভোলা, মিলন ও আইয়ূব খানের নেতৃত্বে ১০-১২জনের একটি প্রভাবশালী সিন্ডিকেট খালে বাঁধ দিয়ে পানি চলাচলে বিঘ্ন সৃষ্টি করে মাছ চাষ করে আসছে। এতে চলতি বর্ষা মৌসুমে পূর্ব বড়ধলী ও চরচান্দিয়া গ্রামের কয়েকটি চরে জলাবদ্ধতা সৃষ্টি হয়। কৃষকদের রোপা আউশ ও আমন ধানের বীজ তলা পানির নীচে পড়ে নষ্ট হয়ে যায়। এতে এলাকাবাসী ক্ষব্ধ হয়ে উঠে। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম (ফেইসবুকে) বিরূপ প্রতিক্রিয়া সৃষ্টি হয়। উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা অজিত দেব’র নির্দেশে স্থানীয় চেয়ারম্যান মোশারফ হোসেন মিলন সকাল থেকে বাঁধগুলো অপসারণ কার্যক্রম শুরু করেন।
এসময় উপস্থিত ছিলেন স্থানীয় ইউপি সদস্য নূরুল ইসলাম লিটন, জেলা ছাত্রলীগ নেতা সাইফুল ইসলাম বাদল, চরচান্দিয়া ইউনিয়ন যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক সারোয়ার হোসেন, ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সভাপতি জীবন মিয়াজী, যুবলীগ নেতা রাশেদুল আলম ও নাজমুল হক নয়ন ইউনিয়নের বিপুল সংখ্যক কৃষক উপস্থিত ছিলেন। কৃষকরা জলাবদ্ধতার কারণে তাদের কয়েক একর জমির ফসল তলিয়ে যাওয়ার অভিযোগের ভিত্তিতে চেয়ারম্যান মোশারফ হোসেন মিলন এ সব বাঁধগুলো অপসারণ করেন।
আগামীতে কোন প্রভাবশালী খালে বাঁধ দিয়ে প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টি করলে তাদের বিরুদ্ধে কঠোর আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে বলে চেয়ারম্যান হুঁশিয়ারি দেন।