সোনাগাজীতে ভূমি খেকো দুলাল গংদের আগ্রাসন থেকে কবরাস্থানের ভূমিও রক্ষা পাচ্ছেনা

আপডেট : May, 25, 2021, 7:34 pm

স্টাফ রিপোর্টার->>>>
ফেনীর সোনাগাজীতে ভূমি খেকো রফিকুল ইসলাম দুলাল গংদের আগ্রাসন থেকে কবরাস্থানের ভূমিও রক্ষা পাচ্ছেনা বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। অত্যাচারী ভূমি খেকো দুলাল গংদের অত্যাচারে অতিষ্ঠ বৃদ্ধ আবদুস ছোবহান সোনাগাজী মডেল থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন। অব্যাহত হুমকিকে চরম নিরাপত্তাহীনতায় রয়েছেন বলেও দাবি করেছেন ভূমি মালিক আবদুস ছোবহান। কথায় কথায় ধারালো দা নিয়ে তেড়ে আসেন দুলাল গং।
এলাকাবাসী ও ক্ষতিগ্রস্ত পরিবার জানায়, সোনাগাজী পৌরসভার মধ্যম তুলাতলী গ্রামের উপরন্তগো বাড়ির আবদুস ছোবহান পারিবারিক কবরাস্থানের জন্য ২০১৯ সালের ২৫জুন বিবি আয়েশা থেকে তুলাতলি মৌজার এমআরওআর-৩৪৮, বিএস-৪৫১, সিএস-৬৯৬, বিএস-৮১১ দাগে দুই শতক জমি খরিদ করেন। জমিটি মোল্লাবাড়ি জামে মসজিদ সংলগ্ন হওয়ায় তিনি পারিবারিক কবরাস্থানের জন্য মাটি ভরাট করে বেড়া, খুঁটি ও সীমানা পীলার দিয়ে সংরক্ষণ করেন। সেখানে তিনি আপাতত সব্জিও চাষ করেছেন। ২৩ মে রোববার রাতের আঁধারে ক্বারী সাহেবের বাড়ির ভূমি খেকো রফিকুল ইসলাম দুলাল, তার বোন, ভাতিজা-ভাতিজি সহ কয়েকজন দুর্বৃত্ত মিলে পূর্ব পরিকল্পিতভাবে কবরাস্থানের সীমানা পীলার, বেড়া ও ঘেরা ভেঙে কবরাস্থানে ভরাটকৃত মাটি উপড়ে ব্যাপক ক্ষতি সাধন করেন। কবরাস্থানের ভূমিটি জবর দখলের চেষ্টা চালান তারা। আব্দুস ছোবহান আরো অভিযোগ করেন, জমিটি একই এলাকার কালা মিয়ার মাধ্যমে খরিদ করলেও অভিযুক্ত দুলাল সশরীরে উপস্থিত থেকে জায়গা পরিমাপ করে বুঝিয়ে দিলে জমিতে মাটি ভরাট করেন তিনি। এঘটনায় আব্দুস ছোবহান বাদী হয়ে দুলাল সহ পাঁচ জনের নাম উল্লেখ করে সোনাগাজী মডেল থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন। এ বিষয়ে অভিযুক্ত দুলাল বলেন, তারা ক্রয়কৃত সম্পত্তি থেকে বাড়তি অংশ দখল করে ভরাট করায় তার ভাতিজারা বাধা প্রদান করেছে। তিনি এ ঘটনায় জড়িত নয়, মালিকও নয়।
সোনাগাজী মড়েল থানার অফিসার ইনচার্জ সাজেদুল ইসলাম এবিষয়ে অভিযোগ পাওয়ার বিষয়টি নিশ্চিত করেন।